শিরোনাম
চিরিরবন্দরে ন্যায্যমুল্যে দুধ ও ডিম বিক্রির উদ্বোধন সাতক্ষীরায় বন্ধুকে জবাই করে হত্যা; গ্রেপ্তারকৃত সোহাগের আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি জাতীয় গণমাধ্যম সপ্তাহকে রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতির দাবীতে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান টাকা দিয়ে এক বছরেও ঘর মেলেনি ভূমিহীন ফাতেমার মাগুরায় আজ নতুন ১০জন করোনা রোগী শনাক্ত,জেলাতে মোট আক্রান্ত ১১৫৬ বেনাপোল সিমান্তে ইয়াবাসহ চোরাকারবারি আটক কাপ্তাই হ্রদের পানিতে ফুল ভাসিয়ে নতুন বছরকে স্বাগত জানিয়েছে রাঙামাটির পাহাড়ি জনগোষ্ঠী সর্বাত্মক লকডাউনের প্রজ্ঞাপন জারি বাঘা থানার ওসির ব্রেইন টিউমারের অস্ত্র পাচার সম্পূর্ণ আসতে পারে সাধারণ ছুটি!
সোমবার, ১২ এপ্রিল ২০২১, ০৬:৫২ অপরাহ্ন

চীনে লেই ফাং ডে উদযাপন এবং লেই ফাং ইন্টারন্যাশনাল ভলান্টিয়ার টিমের যাত্রা শুরু

মাসুদ রানা , চায়না প্রতিনিধি / ৪৯ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : শনিবার, ৬ মার্চ, ২০২১

একদল উদ্যমী ও উৎসাহী তরুণদের সমন্বয়ে চীনের চিয়াংশি প্রদেশের নানছাং শহরে অবস্থিত চিয়াংশি ইউনিভার্সিটি অব ফিন্যান্স অ্যান্ড ইকোনমিক্স বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত আন্তর্জাতিক এবং চাইনিজ শিক্ষার্থীদের নিয়ে যাত্রা শুরু করলো সেচ্ছাসেবী সংগঠন লেই ফাং ইন্টারন্যাশনাল ভলান্টিয়ার টিম।

শুক্রবার বিকালে বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের সাথে কেক কেটে লেই ফাং ডে উদযাপনের মধ্য দিয়ে সংগঠনটির আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু করে। সংগঠনটি চাইনিজ কমিউনিটিতে বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশু সহ এতিম এবং বয়স্ক ব্যক্তিদের নিয়ে কাজ করবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ে পিএইচডি প্রােগ্রামে অধ্যয়নরত বাংলাদেশি শিক্ষার্থী মোহম্মদ ছাইয়েদুল ইসলাম শিক্ষার্থীদের সাথে নিয়ে এই স্বেচ্ছাসেবী সামাজিক সংগঠন গঠনের উদ্যোগ নেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ওভারসীজ এডুকেশন স্কুলের সার্বিক সহযোগিতায় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সদস্যরা লেই ফাং ডে উদযাপনের জন্য নানা কর্মসূচী পালন করে। তারা নানছাং শিহু ডিস্ট্রিক্ট মডার্ন হ্যান্ডিক্যাপেড এডুকেশন এন্ড রিহ্যাবিলিটেশন সেন্টারের বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের মাঝে খাবার এবং উপহার সামগ্রী বিতরন করে। পাশাপাশি স্বেচ্ছাসেবীরা নাচ, গান এবং নানা ধরনের গেম খেলার মাধ্যমে শিশুদের সাথে আনন্দ ভাগাভাগি করে নেয়।

সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা ও টিম লিডার মোহাম্মদ ছাইয়েদুল ইসলাম জানান, লেই ফাং পিপলস লিবারেশন আর্মির একজন সৈনিক ছিলেন। তিনি চীনসহ সকল দেশের স্বেচ্ছাসেবীদের আইকন। যখন আমরা লি ফ্যাং নিয়ে চিন্তা করি তখন আমরা নিঃস্বার্থতা, বিনয় এবং উৎসর্গতা সম্পর্কে চিন্তা করি।

তিনি আরো বলেন, আমাদের স্লোগান হল “ফর এ স্মাইল”। মানুষ হিসেবে প্রত্যেকের সমাজের প্রতি দায়িত্ব আছে। আমরা সবাই পৃথিবী নামক একটা পরিবারে সদস্য। আমরা বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশু সহ এতিম এবং বয়স্ক ব্যক্তিদের মাঝে হাসি ফুটাতে চাই।

লেই ফাং ডে উপলক্ষে লেই ফাং এর জীবনীর উপর এক বিশেষ আলোচনা সভারও আয়োজন করা হয়। লেই ফাং এর জীবনীর উপর আলোচনা করনে বিশ্ববিদ্যালয়ের ওভারসীজ এডুকেশন স্কুলের প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর মিস ফান ইং, নানছাং শিহু ডিস্ট্রিক্ট মডার্ন হ্যান্ডিক্যাপেড এডুকেশন এন্ড রিহ্যাবিলিটেশন সেন্টারের ব্রাঞ্চ পরিচালক মিস ঝু লেই, চাইনিজ ভলান্টিয়ার টিমের লিডার ওয়াং শিআও, আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থী কারমেন এবং মিগুয়েল। আলোচনা সভায় বাংলাদেশি শিক্ষার্থী, আন্তর্জাতিক এবং চাইনিজ শিক্ষার্থী ছাড়াও বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের পিতামাতারা উপস্থিত ছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

বাংলাদেশে কোরোনা

সর্বশেষ (গত ২৪ ঘন্টার রিপোর্ট)
আক্রান্ত
মৃত্যু
সুস্থ
পরীক্ষা
সর্বমোট