শিরোনাম
করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবেলায় জনগণকে সচেতন করতে সকলকে এগিয়ে আসতে হবে- বৈলরে শাহানশাহ কেড়াগাছি ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী মারুফ হোসেনের আইচ পাড়ায় নির্বাচনী কর্মী সমাবেশ অনুষ্ঠিত পথ শিশু দের মাঝে খাবার বিতরন করেন ছুয়ানি মার্কেট ব্লাড ডোনার ক্লাব সৌদির সহযোগীতায় দেশের আট বিভাগে তৈরি হবে আধুনিক আইকনিক মসজিদ বাংলাদেশ করোনা ভাইরাস(কোভিড-১৯) এর সর্বশেষ আপডেট সাংবাদিক জসিম এর খালুর মৃত্যুতে “মানব কল্যাণ সেবা সংঘ”পরিবারের শোক প্রকাশ কিংবদন্তি ফুটবলার ম্যারাডোনাকে নিয়ে লেখা কবিতা সোকেল দে এর লিখা কবিতা “বিষর্ন্নতা মন” চলে গেলেন প্রখ্যাত অভিনেতা আলী যাকের বরেণ্য অভিনেতা আলী যাকেরের মৃত্যুতে বিরোধীদলীয় নেতার শোক
শনিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২০, ০২:১২ পূর্বাহ্ন

মানুষ অর্থ বানানোট কোন রোবট নয়,শ্রমিকদের চালিকাশক্তি বানিজ্যিক খাতে লাগাতে হবে”’ ডঃইউনুস করোনা পরবর্তী বিশ্বে অত্যন্ত সাহসী পরিকল্পনার প্রয়োজন- ড. মুহাম্মদ ইউনূস

অনলাইন ডেস্ক / ১৮ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ১৭ নভেম্বর, ২০২০

করোনার পরবর্তী সমাজব্যবস্থায় শ্রমিকদের স্বাবলম্বী করে গড়ে তুলতে নতুন ধরনের ব্যাংক গঠনের আহ্বান জানিয়েছেন শান্তিতে নোবেলজয়ী প্রফেসর ড. মুহাম্মদ ইউনূস৷

তাঁর মতে, এই মহামারীর কারণে যে লাখো-কোটি শ্রমিক ক্ষতির মুখে পড়েছে, তাদের সহায়তার জন্য এমন ব্যাংক তৈরি করা দরকার৷ করোনা পরবর্তী বিশ্বের জন্য অত্যন্ত সাহসী ও দৃঢ় চিন্তাভাবনা ও পরিকল্পনার প্রয়োজন বলে মনে করছেন তিনি৷‘গরিবের ব্যাংকার’ নামে পরিচিত এই বাংলাদেশি অর্থনীতিবিদ বলেছেন, ‘‘এই সংকট আমাদের জন্য সুন্দর, সবুজ ভবিষ্যতের পথ তৈরি করছে৷” তবে বর্তমান সময়ে এটিকে টাইম বোমার সঙ্গে তুলনা করেছেন তিনি৷করোনা পরবর্তী সমাজে তিনটি ক্ষেত্রে প্রাধান্য দেয়ার কথা বলেছেন তিনি:এক. জলবায়ু পরিবর্তন রোধ করা দুই. সম্পদের সুষ্ঠু বন্টনএবং তিন. গণ বেকারত্ব প্রতিরোধ করা, যেহেতু কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার কারণে অনেক মানুষ চাকরি হারাচ্ছে৷ থমসন রয়টার্স ফাউন্ডেশনের বার্ষিক আয়োজন ‘ট্রাস্ট কনফারেন্সে’ ইউনূস বলেন, ‘‘করোনা আমাদের চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়েছে বিশ্ব অর্থনীতি ও সামাজিক অবস্থার দুর্বলতা৷” তবে সবচেয়ে সংকটের মুহূর্তে সবচেয়ে সুন্দর ভাবনাগুলো বেরিয়ে আসে বলে মনে করেন তিনি৷ ততিনি বলেন,‘‘আমাদের উচিত পুরোনো চিন্তাগুলোকে দূরে ঠেলে সাহসের সাথে নতুন ভাবনাগুলো নিয়ে কাজ করা, যেগুলো আগে কখনো করা হয়নি৷”অনলাইন এই সম্মেলনে ৮০ বছর বয়সি এই অর্থনীতিবিদ করোনা পরবর্তী সমাজ গঠনের ক্ষেত্রেসামাজিক ও পরিবেশগত সমস্যাগুলো সমাধানের উপর জোর দেন৷ তিনি বলেন, ‘‘মানুষ কোন অর্থ বানানোর রোবট নয়, মানুষকে বাণিজ্যখাতে চালিকাশক্তি হিসেবে কাজে লাগাতে হবে, কেবল লাভের কথা ভাবলে হবে না৷” বলেন,‘‘বাংলাদেশে ৭০ ভাগ শ্রমিকের কোন সঞ্চয় নেই, করোনার কারণে এই শ্রমিকরা ভয়াবহ অবস্থার মধ্যে আছে৷” তাই এই শ্রমিকদের নিজের পায়ে দাঁড়ানোর জন্য উদ্যোক্তা হিসেবে গড়ে তুলতে ‘স্যোশাল বিজনেস মাইক্রো-অন্তপ্রনেরিয়াল ব্যাংক’ প্রতিষ্ঠার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি৷ধনী দেশগুলোর করোনা ভ্যাকসিন উৎপাদন ও বিক্রির সমালোচনা করে মুহাম্মদ ইউনূস বলেছেন, ‘‘বিশ্বের একজন ব্যক্তি যদি অরক্ষিত থাকে, তাহলে সবার সুরক্ষিত থাকা সম্ভব নয়৷”
এই অর্থনীতিবিদ আরও বলেছেন, ‘‘সময় এসেছে বিকেন্দ্রীকরণের৷ বলেছেন, আধুনিক প্রযুক্তির এই যুগে কেনো গ্রামগুলোতে কল সেন্টার স্থাপন করা সম্ভব নয়?” অর্থাৎ শহরমুখী যে অর্থনৈতিক চালিকাশক্তি সেটাকে বিকেন্দ্রীকরণের আহ্বান জানিয়েছেন তিনি৷ করোনার আগের বিশ্বকে বৈশ্বিক উষ্ণতা, ধনী-গরীব বৈষ্যমের বিশ্ব বলে অভিহিত করে তিনি বলেন, ‘‘সেই সময়ে ফিরে যাওয়ার কোন দরকার নেই৷ কেননা সেটা এমন একটা ট্রেন যা আমাদের মৃত্যুর দিকে নিয়ে যাচ্ছিলো৷” তাই তিনি ‘ওয়ার্ল্ড অফ থ্রি জিরোস’ এর উপর জোর দিয়েছেন৷ অর্থাৎ কার্বন নির্গমনের হার শূন্যে নিয়ে আসা, সম্পদের বৈষম্য শূন্যে আনা এবং বেকারত্বের সংখ্যা শূন্যে নামিয়ে আনা৷ তিনি জোর দিয়ে বলেন, এটাই সময় এগুলোকে বাস্তবায়ন করার৷


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

বাংলাদেশে কোরোনা

সর্বশেষ (গত ২৪ ঘন্টার রিপোর্ট)
আক্রান্ত
মৃত্যু
সুস্থ
পরীক্ষা
২,৯৪৯
৩৭
২,৮৬২
১৩,৪৮৮
সর্বমোট
১৭৮,৪৪৩
২,২৭৫
৮৬,৪০৬
৯০৪,৫৮৪