বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:৩৭ অপরাহ্ন

  • বাংলা বাংলা English English
রাজাপুরে হোসনেয়ারা বেগম বকুল হত্যার রহস্য উদঘাটন
ঝালকাঠি থেকে মোঃ রাশেদ খান / ৮৬ Time View
Update : বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

ঝালকাঠির রাজাপুরে পাঁচ সন্তানের জননী হোসনেয়ারা বেগম বকুল হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। হত্যাকারী মো. শাকিলকে গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। হত্যায় ব্যবহৃত ছুরি, ঘরের চাবি ও হাতিয়ে নেয়া স্বর্ণালঙ্কার উদ্ধার করেছে পুলিশ। শাকিল ঢাকা নারায়নগঞ্জ সদরের গোগনগর মুর্শিদাবাদ বড় মসজিদ এলাকার মো. শাহিনের ছেলে ও রাজাপুর উপজেলা সদরের টিএন্ডটি সড়কের মতিউর রহমান মামুনের ভাড়াটিয়া। নিহত হোসনেয়ারা বকুল উপজেলা সদরের টিএন্ডটি সড়কের মৃত আব্দুল খালেক হাওলাদারের দ্বিতীয় স্ত্রী।

পুলিশ জানায়, শাকিলের সাথে নিহত বকুলের পূর্ব থেকেই পরিচয় ছিল। শাকিল দিনমজুরের কাজ করতো। করোনার কারনে কোন কাজ না থাকায় সে অনেক ঋণী হয়ে পড়ে। ঐ সময় বকুলের শারীরে অনেক স্বর্ণালঙ্কার দেখে শাকিলের লোভ হয় এবং ঐ গুলো হাতিয়ে নিয়ে ঋণ পরিশোধ করার পরিকল্পনা করে।

ঘটনার দিন ১৩ আগস্ট সন্ধ্যায় সাথে ছুরি নিয়ে ভাড়ার ঘর দেখার কথা বলে বকুলকে তার শয়ন কক্ষ থেকে ডেকে আনে শাকিল। এর পরে তালা খুলে ভাড়ার ঘরের মধ্যে প্রবেশ করে শাকিল বকুলের গলা চেপেধরে মেঝেতে ফেলে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে সাথে থাকা ছুড়ি দিয়ে গলায় আঘাত করে বকুলের মৃত্যু নিশ্চিত করে। পরে বকুলের শীরের থাকা স্বর্নালঙ্কার হাতিয়ে নিয়ে শাকিল ঘটনা স্থল থেকে পালিয়ে যায়।

এ ঘটনায় বকুলের বড় ছেলে শফিকুল ইসলাম লিটন বাদী হয়ে অজ্ঞাত আসামিদের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। গত ১৮ আগস্ট পুলিশ সন্দেভাজন শাকিলকে ঢাকা নারায়নগঞ্জ সদরের ভূইয়াপাড়া এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করেন। ২০ আগস্ট শাকিলকে আদালতে পাঠিয়ে ১০দিন রিমান্ড আবেদন করেন পুলিশের তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মো. শাহআলম। আদালত ৫দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রিমান্ডে শাকিলকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে শাকিল পুলিশের কাছে এসব কথা স্বীকার করেন। বকুলের সাথে ছেলে-মেয়েদের সম্পর্ক খারাপ থাকায় হত্যার দায় তাদের উপর পরবে বলেই শাকিল বকুলকে নির্ভয়ে হত্যা করেছে বলেও জানায়। শাকিলের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী হত্যায় ব্যবহৃত ছুরি, ঘরের চাবি ও হাতিয়ে নেয়া স্বর্ণালঙ্কার উদ্ধার করেছে পুলিশ। ৫দিনের রিমান্ড শেষে শাকিলকে আদালতে পাঠালে আদালত তাকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

রাজাপুর থানা অফিসার ইনচার্জ মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদে বকুলকে হত্যার দায় স্বীকার করেছে শাকিল। নারায়নগঞ্জ সদর থানায় শাকিলের বিরুদ্ধে একটি হত্যা ও দুই মাদকের মামলা রয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
জনপ্রিয় সংবাদ
সর্বশেষ সংবাদ