মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ০৫:২৯ পূর্বাহ্ন

  • বাংলা বাংলা English English
তারাকান্দায় ইউএনও’র সহযোগীতায় প্রথম বারের মতো জলাবদ্ধতামুক্ত হলো বালিখাবাসী
ময়মনসিংহ থেকে আরিফ রববানী / ৫৮ Time View
Update : মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১

ময়মনসিংহের তারাকান্দা উপজেলা বাসীকে জলাবদ্ধতা থেকে বাঁচাতে জলাবদ্ধতার সমস্যা সমাধানে দিনরাত উপজেলার একপ্রান্ত থেকে অপর প্রান্তে ছুটছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিজাবে রহমত। জলাবদ্ধতা নিরসনে তিনি উপজেলার সদর ইউনিয়নে সরেজমিনে পরিদর্শনে দেখেন যে, রাংসা নদীতে কৃত্রিমভাবে তৈরিকৃত বাঁশের বাঁধ (হোকোশ) দিয়ে পানির স্বাভাবিক প্রবাহ বন্ধ করে মাছ ধরা হয়। কৃত্রিম বাঁশের বাঁধের ফলে আবাদি জমি পানির নিচে তলিয়ে যাচ্ছে। ফলে জমি থাকা সত্বেও অনেকেই ধান আবাদ করতে না পেরে কষ্টকর জীবনযাপন করছেন।

সোমবার (৩০শে আগষ্ট) তারাকান্দা ও বালিখা ইউনিয়নে রাংসা নদীতে কৃত্রিমভাবে তৈরিকৃত ১৩ টি বাঁশের বাঁধ অপসারণ করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিজাবে রহমত, এসময় আরো সেখানে উপস্থিত ছিলেন সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যবৃন্দ, তারাকান্দা থানার পুলিশ সদস্যগণ ও স্থানীয় জনসাধারণ।

সকাল থেকে দিনব্যাপী ওই অভিযান পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিজাবে রহমত।

সাধারণ মানুষের দেওয়া তথ্য মতে-স্বাধীনতার ৫০ বছর পরে প্রথম বারের মতো তারাকান্দা সদর ইউনিয়ন দিয়ে প্রবাহিত রাংসা নদীতে ওই অভিযান পরিচালনা করা হয়। নদীতে অবৈধভাবে তৈরি বাঁধ অপসারণকে স্বাগত জানিয়েছে স্থানীয় জনগণ। প্রায় দুই কিলো রাস্তা পায়ে হেঁটে ওই বাঁধ অপসারণ করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিজাবে রহমত।

সুত্র জানিয়েছে-কতিপয় ব্যক্তি দীর্ঘদিন ধরে রাংসা নদীতে অবৈধ বাঁধ নির্মাণ করে মাছ শিকার করে আসছিল।এদিকে বাঁধ দেয়ার ফলে নদীর স্বাভাবিক পানির গতি প্রবাহ ব্যহত হচ্ছিল। আশপাশে জমি ও বাড়িঘরে পানি উঠতে শুরু করছিল। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিজাবে রহমত জানান, এর পর কেউ যদি অবৈধভাবে বাঁধ নির্মাণ করে প্রতিবন্ধকতা ও জলাবদ্ধতার সৃষ্টি করে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
জনপ্রিয় সংবাদ
সর্বশেষ সংবাদ