বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ১১:০৪ অপরাহ্ন

  • বাংলা বাংলা English English
আদর্শ ইউনিয়ন হিসেবে গড়ে তুলতে চান চেয়ারম্যান মোঃ শফিকুর রহমান শফিক
মোস্তাফিজুর রহমান,বাঘা(রাজশাহী) প্রতিনিধি: / ২৫৫ Time View
Update : বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১

রাজশাহীর বাঘা উপজেলায় রয়েছে ৭ টি ইউনিয়ন ও ২টি পৌরসভা। আর ৭ টি ইউনিয়নের মধ্যে একটি হলো বাউসা ইউনিয়ন। উপজেলার এই ইউনিয়নটি প্রত্যন্ত অঞ্চলে হলেও এর চেয়ারম্যান মোঃ শফিকুর রহমান শফিক এর কর্মদক্ষতায় সামগ্রিক উন্নয়ন কর্মকান্ড সঠিকভাবে বাস্তবায়ন হওয়ার বিষয়টি ইউনিয়নবাসীকে আকৃষ্ট করেছে।

আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী হিসেবে গত ইউপি নির্বাচনে বিপুল জনসমর্থনে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে মোঃ শফিকুর রহমান শফিক ইউনিয়নবাসীর প্রিয়মুখ ও গণমানুষের নেতা হয়ে উঠেছেন। তিনি সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে ইউনিয়ন এলাকার উন্নয়ন তথা সরকার ঘোষিত প্রতিটি প্রকল্পের কার্যক্রম সুন্দর ও সফলভাবে সম্পাদন করতে সক্ষম হওয়ায় বাউসা ইউনিয়ন ছাড়াও সমগ্র উপজেলা জুড়ে রয়েছে ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ শফিকুর রহমান শফিক এর সুনাম।

সম্প্রতি সরেজমিন বাউসা ইউনিয়নের ৫ নম্বার ওয়ার্ডে গিয়ে দেখা যায়, ফতেপুর বাউসা গ্রামের একটি পাড়াতে সড়কের কাজ উদ্ভোধন করে শেষ পর্যন্ত পরিদর্শন করেন ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ শফিকুর রহমান শফিক । এসময় গ্রামবাসীর সঙ্গে চেয়ারম্যান শফিক এবং ৫ নম্বার ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য শফিকুল ইসলাম ও এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন । এছাড়ও বিভিন্ন স্থানে পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা, কমিউনিটি ক্লিনিক, বাজারসহ বিভিন্ন বিদ্যালয়ে উন্নয়নমূলক কাজ করছেন। এই ইউনিয়নে বসবাসকৃত সর্বসাধারণ শিক্ষা ও স্বাস্থ্যসেবা থেকে শুরু করে সরকার ঘোষিত সকল প্রকার সুবিধাদি পাচ্ছেন।

এলাকার সার্বিক উন্নয়নের বিষয়ে প্রভাষক মো. রাশেদুল ইসলাম বলেন, আমাদের চেয়ারম্যান মোঃ শফিকুর রহমান শফিক একজন ভালো মানুষ, অনেক পরিশ্রমী এবং এলাকার উন্নয়নে যথেষ্ট নিবেদিত প্রাণ একজন ব্যাক্তি। তিনি আরো বলেন তার একটি ভালদিক তাকে আমরা যখন যে খানে ডাকি সঙ্গে সঙ্গে অপস্থিতি পাই।

ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ শফিকুর রহমান শফিক বলেন, বাউসা ইউনিয়নকে একটি আদর্শ ইউনিয়ন হিসেবে গড়ে তোলাই আমার একমাত্র লক্ষ্য।

বঙ্গবন্ধুকে ভালবেসে তার আদর্শকে ধরে রাখতে আলহাজ্ব মোহাম্মদ শাহরিয়ার আলম(এমপি)’র হাত ধরে কাজ করে জেতে চাই। আমি চাই আমার ইউনিয়নের প্রতিটি মানুষ তার সুখ দুঃখের কথা আমার সাথে ভাগাভাগী করুক। তাতে করে আমি কিছুটা হলেও তাদের উপকারে আসতে পারবো। আর এই সকল কাজ জনপ্রতিনিধি হিসেবে আমার নৈতিক দায়িত্ব ও কর্তব্য।

করোনাকালীন সময়ে আমি সবার কথা চিন্তা করে বিভিন্ন স্থানে সচেতনতামূলক মাইকিং ও মাস্ক বিতরণসহ করোনা আক্তান্ত রোগীর প্রতিদিন বাসায় গিয়ে খোজ খবর নিয়েছি। আমি সব সময় যেন এইভাবে জনগনের পাশে থাকতে পারি।

তিনি আরো বলেন, আমি আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আমি আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী। আমি সবার কাছে দোয়া প্রার্থী, যেন আবার আপনারা আমাকে মনোনিত করে আপনাদের পাশে রাখেন।

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category