শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১১:১৬ অপরাহ্ন

  • বাংলা বাংলা English English
স্বাধীনতার দায়
কলিম উদ্দিন / ৭০ Time View
Update : শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১

দেখতে দেখতে ৫০ বছর পেরিয়ে গেল আমাদের স্বাধীনতার।

একটা কথা থেকে থেকে মনের মাঝে উঁকি মারে স্বাধীনতার দ্বায়।।
যে- শব্দটির ভিতরে রয়েছে আমাদের দেশ‌‌ ও দেশবাসী।
শত শত দেশপ্রেমিক শ্রমিক তাদের প্রতীক তাদের আদর্শের প্রতীক, তাদের সংগ্রামের প্রতীক।
আমাদের ব্যক্তি সমাজের রাষ্ট্রনৈতিক সম্মান ও কর্তব্যবোধ।
সেখানথেকে দায় শব্দটির পাশাপাশি এসে দাঁড়ায় দায়িত্ব কথাটি।
যে স্বাধীন সার্বভৌম গণতান্ত্রিক ধর্মনিরপেক্ষ মাটিতে আমাদের জন্ম।
আমাদের বসবাস।
যে দেশের পরাধীনতার মুক্তির ইতিহাসে মিশে আছে শত শত বীর বিদ্রোহী শহীদের রক্ত।
সেই স্বাধীন দেশের স্বাধীনতা গরিমা উন্নয়নে নিজের ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র প্রয়াস ও উদ্যোগকে‌ সামিল করা দেশের সুপ্রাচীন ঐতিহ্যকে সুসম্মানে এগিয়ে নিয়ে চলার কাজে এক‌‌ একক হিসেবে অংশগ্রহণ করা।
দ্বায় ও দায়িত্ব শব্দগুলি ধারণা হিসেবে তখনই মনের মধ্যে একটা রূপ নিতে পারে– যখন শৈশব‌ থেকে আমরা আমাদের দেশীয় ঐতিহ্য পরম্পরা বহনকারী শিক্ষা তথা আশ্রয়ী মনোভাবের বীজ রোপন করতে পারি আমাদের মননে দর্শনে।
এই কথাগুলি বলতে বলতে ভাবতে ভাবতেই নিজের সামনে দাঁড়াচ্ছি বারবার।
সন্তান হিসাবে,পিতা হিসাবে, স্বামী হিসাবে,প্রতিবেশী হিসাবে, কর্মীক হিসাবে সামগ্রিকভাবে এই দেশের নাগরিক হিসাবে।
আমি কি করেছি??
আমি কি করছি??
এর প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে গিয়ে বারবার তর্জনী উঠছে অপরের দিকে।
এটা করা উচিত।
বারবার এই শব্দ দেশে দখল নিয়েছে।
আমার সত্ত্বাকে।
এটা হওয়া দরকার।
ও কেন এটা করছে‌ বা করছে না??
সমাজ কেন দিচ্ছে না??
রাষ্ট কেন ভাবছে না???
সর্বোপরি আমি একা কিবা কতটুকু করতে পারি??
নিজের দায়-দায়িত্বের বর্ণনায় চোরা আলোকিত রঙিন কাহিনী উঠে আসছে বারবার।
সম্প্রতি স্বাধীনতার দায় শিরোনামে সমাজের নানান‌ স্তরের স্বাক্ষর নবীন প্রবীণ স্ত্রী পুরুষের অবলোকনে এমনটি দেখতে পাওয়া যায় যে,
অধিকাংশের তর্জনী অপরের দিকে।
অধিকাংশের পাশে এমনটাই হওয়া উচিত।
আর এরই মাঝে গোপনে আন্তর্জাতিক বাজার ফাঁদ পেতে চলেছে জাল পেতে চলেছে।
আধুনিকতার প্রযুক্তির মোড়কে বিদেশি পণ্য বিদেশি সংস্কৃতি গ্রাস করছে।
দেশজ উৎপাদনের প্রতি আমাদের উদাসীনতার আড়ালে ফাঁদ বিস্তার করছে আন্তর্জাতিক শক্তি।
নিজের দিক থেকে দৃষ্টি ফেরানো দায় ও দায়িত্ব গিয়ে বর্তায় কেবল অপরের দিকে।
দায় শব্দটির সঙ্গে শুধু আবেগ নয়।
নিজস্ব শিক্ষা-সংস্কৃতি পরম্পরা ঐতিহ্যের প্রতি শ্রদ্ধা ও সম্মানের যে ধারা তা যদি ছেড়ে যায়–তবে আমরা স্বাধীন দেশের নাগরিক হয়ে স্বাধীনতাকে উপভোগ করতে পারি আমাদের বিলাসে ব্যাসনে।
কিন্তু সামগ্রিকভাবে স্বাধীনতাপ্রাপ্তির ৫০ বছরের‌ পদার্পণের যথাযথ মহিমা গরিমাকে অক্ষুন্ন রাখতে পারবো কি???

রবীন্দ্রনাথের কথাই শেষ করি। যেখানে তিনি বলছেন।
“আমি প্রথম থেকেই রাষ্ট্রীয় প্রসঙ্গে এ কথাই বারংবার বলেছি- যে কাজ নিজে করতে পারি সে কাজ সমস্তই বাকি ফেলে অন্যের উপরে অভিযোগ নিয়েই অহরহ কর্মহীন উত্তেজনার মাত্রা চড়িয়ে দিন কাটানো কে আমি রাষ্ট্রীয় কর্তব্য বলে মনে করি না আপন পক্ষের কথাটা সম্পূর্ণ ভুলিয়াছি বলেই অপর পক্ষের কথা নিয়ে এত অত্যন্ত অধিক করে আমরা আলোচনা করে থাকি তাতে শক্তি হ্রাস পায়।”

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category