বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ১১:৪৮ পূর্বাহ্ন

  • বাংলা বাংলা English English
সাতক্ষীরায় ৫রুটে বাস বন্ধে সীমাহীন দুর্ভোগে যাত্রীরা
সাতক্ষীরা থেকে সোহাগ হোসেন / ১৯ Time View
Update : বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১

তেলের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে সারা দেশের ন্যায় সাতক্ষীরার পাঁচটি রুটে সকল প্রকার গণ পরিবহন বন্ধ থাকায় চরম দুর্ভোগে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। গণ পরিবহন বন্ধ থাকার সুযোগ নিচ্ছেন ইজিবাইক, মাহিন্দ্রা থ্রি হুইলার, অটো টেম্পু, গ্রাম বাংলাসহ বিভিন্ন যানবাহনের চালকরা। যাত্রীদের অসহায়ত্বের সুযোগ নিয়ে এসব যানবাহনের চালকরা ভাড়া হাকছেন দ্বিগুনেরও বেশি। ৩৮ টাকার ভাড়া ১০০টাকায়ও মিটছে না বলে জানান যাত্রীরা।

সাতক্ষীরা-আশাশুনি সড়কের শহরের পিএন স্কুল মোড়ে কথা হয় যাত্রীদের সাথে। আশাশুনির শ্রীউলা এলাকার বাসিন্দা নুরুজ্জামান বলেন, জরুরী চিকিৎসার জন্য তিনি বৃহস্পতিবার সাতক্ষীরায় এসেছিলেন। তখনও তিনি জানতেন না যে, শুক্রবার বাস বন্ধ থাকবে। সকালে বাড়ি ফেরার সময় জানতে পারলেন বাস বন্ধ। পিএন স্কুল মোড়ে গিয়ে আশাশুনি যেতে চাইলে ইজিবাইক চালকরা ১২০ টাকা ভাড়া দাবি করেন। অথচ সাতক্ষীরা থেকে আশাশুনি পর্যন্ত বাস ভাড়া ৩৮টাকা।

এ দুর্ভোগে শুধু নুরুজ্জামান একা পড়েননি। তার মতো শতশত যাত্রী সীমাহীন দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন।

এদিকে সাতক্ষীরা বাস মিনিবাস মালিক সমিতি সূত্রে জানা গেছে, সাতক্ষীরায় পাঁটটি রুটে তারা কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে গণ পরিবহন বন্ধ রেখেছেন। রুটগুলো হচ্ছে- সাতক্ষীরা-খুলনা, সাতক্ষীরা-যশোর, সাতক্ষীরা-মুন্সিগঞ্জ, সাতক্ষীরা-ঘোলা(আশাশুনি) এবং সাতক্ষীরা-বাঁকা সড়ক। সকল রুটেই একই অবস্থা বিরাজ করছে।

সাতক্ষীরা পরিবহন শ্রমিক নেতা রবিউল ইসলাম জানান, ডিজেলের দাম বাড়ানোর প্রতিবাদে আজ শুক্রবার (৫ নভেম্বর) সকাল থেকে গণপরিবহন অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ রেখেছে পরিবহন মালিক ও শ্রমিকদের তিনটি সংগঠন।
ফলে আজ সকাল ৬টা থেকে সারা দেশে বন্ধ রয়েছে বাস চলাচল। একইভাবে সারা দেশে পণ্য পরিবহনও বন্ধ রয়েছে।

শুক্রবার সকালে সাতক্ষীরার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, যাত্রীবাহী বাস বন্ধ থাকলেও ছোট ছোট যানবাহন বিশেষ করে ইজিবাইক, ব্যাটারি চালিত ভ্যান, গ্রামবাংলা, মাহিন্দ্রা ও মোটরসাইকেল চলছে। তবে ভাড়া চাওয়া হচ্ছে তিন-চার গুন। ফলে বাধ্য হয়েই বাড়তি ভাড়া দিয়ে গন্তব্যে যেতে হচ্ছে যাত্রীদের।

ভুক্তভোগী যাত্রীরা জানান, এর আগেও দেশে ধর্মঘট চলেছে গণপরিবহনের। তবে এবারের চিত্র অন্যবারের তুলনায় অনেকটা আলাদা। ৩০ টাকার ভাড়া চাওয়া হচ্ছে ১০০ টাকার ওপরে।

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category