সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ০৫:৫৯ পূর্বাহ্ন

বিনম্র শ্রদ্ধায় কলারোয়ায় শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালিত
সাতক্ষীরা থেকে সোহাগ হোসেন / ১৮০ Time View
Update : সোমবার, ২০ মে ২০২৪

১৪ ডিসেম্বর, ১৯৭১ থেকে ২০২১, তারিখ একই, সাল ভিন্ন। পেরিয়েছে ৫০টি বছর। তবে বার একই, মঙ্গলবার ১৯৭১ সালের ১৪ ডিসেম্বর ছিলো মঙ্গলবার, অর্ধশত বছর পর ২০২১ সালের ১৪ ডিসেম্বরও মঙ্গলবার।

এদিনটি বাংলাদেশের ইতিহাসে অবিস্মরণীয় ও গুরুত্বপূর্ণ দিন। ৭১’র এদিনেই স্বাধীন বাংলাদেশের চুড়ান্ত বিজয়ের পতাকা ওড়ার প্রাক্কালে নারকীয় হত্যাযঞ্জ চালায় পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী। বহু বুদ্ধিজীবীদের হত্যা ও গুম করা হয়। তারের শেষ মুহূর্তের আত্মত্যাগে দেশ মুক্ত হয় পাকিস্তান হানাদার বাহিনীর কবল থেকে। বিনম্র শ্রদ্ধায় কলারোয়ায় মঙ্গলবার (১৪ ডিসেম্বর, ২০২১) শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালিত হয়েছে। পুষ্পমাল্য অর্পণ, আলোচনা সভা, দোয়ানুষ্ঠানসহ নানান আয়োজনে উপজেলা প্রশাসন, বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান দিবসটি যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করে।

সকাল সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলা অডিটোরিয়াম আলোচনা সভার আয়োজন করে উপজেলা প্রশাসন। এতে বীর মুক্তিযোদ্ধা, জনপ্রতিনিধি, সরকারি কর্মকর্তা, রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব ও অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব ও সঞ্চালনা করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) জুবায়ের হোসেন চৌধুরী।

প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম লাল্টু। সূচনা বক্তব্য রাখেন কলারোয়া সরকারি কলেজের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. আবু নসর। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ও বক্তব্য রাখেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি- এসিল্যান্ড) আল-আমিন হোসেন, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর খায়রুল করীর, যুদ্ধকালীন কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল গফফার, পৌরসভার মেয়র প্রধান শিক্ষক মনিরুজ্জামান বুলবুল এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার জিয়াউর রহমান। অনুষ্ঠানের বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রউফ, বীর মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার হোসেনসহ উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। বক্তারা বলেন, ‘১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধ চির উজ্জ্বল হয়ে আছে অগণিত শহীদ বুদ্ধিজীবীদের আত্মত্যাগে ও আত্মনিবেদনের বিনিময়ে।’

অনুষ্ঠানে বীর মুক্তিযোদ্ধারা রণাঙ্গনের দু:সাহসিক স্মৃতিচারণ করেন। প্রত্যাশা করেন মুক্তিযুদ্ধের চেতনা লালন ও ধারণে উদ্বুদ্ধ থাকুক নতুন ও পরবর্তী প্রজন্ম। শহীদ বুদ্ধিজীবীদের আত্মার মাগফেরাত কামনায় দোয়া করা হয়। দোয়া পরিচালনা করেন উপজেলা জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা হাবিবুর রহমান। এর আগে কলারোয়া ফুটবল মাঠের কর্নারে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিস্তম্ভ ‘স্বাধীনতা’র পাদদেশে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানো হয়।

বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক, সরকারি-বেসরকারি দপ্তরের পক্ষ থেকে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়। এদিকে, কলারোয়া হোমিওপ্যাথি মেডিকেল কলেজে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালিত হয়েছে।

এ উপলক্ষে দুপুরে কলেজের হলরুমে আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রতিষ্ঠান পরিচালনা কমিটির অন্যতম সদস্য ও কলারোয়া সরকারি কলেজের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. আবু নসর। কলেজের অধ্যক্ষ ডাক্তার আব্দুল বারীকের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন প্রভাষক ডাক্তার মাহবুবুল হাসান, ডাক্তার মাহবুবুর রহমান প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন প্রভাষক ডাক্তার হাবিবুর রহমান। অনুরূপভাবে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পালিত হয়েছে বলে জানা গেছে।

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
জনপ্রিয় সংবাদ
সর্বশেষ সংবাদ