শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ১২:১৯ পূর্বাহ্ন

দুঃখ চেপে ফেরার লড়াইয়ে হাসান মাহমুদ
স্পোর্টস ডেস্ক / ১৫৫ Time View
Update : শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪

সম্ভাবনার প্রদীপ জ্বেলে বাংলাদেশ জাতীয় দলে অভিষেক। তবে প্রায় দেড় বছরের ক্যারিয়ার ৩টি ওয়ানডে ও ১টি টি-টোয়েন্টিতেই থমকে আছে পেসার হাসান মাহমুদের। দীর্ঘদিন ধরে ইনজুরির সঙ্গে লড়ছেন তিনি। বর্তমানে রিহ্যাব প্রক্রিয়া চলছে হাসান মাহমুদের। আজ (রোববার) থেকে শুরু করেছেন নেট বোলিং। চলতি মাসেই চিকিৎসার জন্য ইংল্যান্ডে যাবেন হাসান।

মিরপুরে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে হাসান বলছিলেন, ‘জানুয়ারিতে ইংল্যান্ড যাব দেবাশীষ স্যার বলছিলেন। ওখানে ডাক্তারের সাথে দেখা করব। মনে হয় স্ক্যান বা কোনো একটা বিষয় আছে।’

২০২০ সালে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ খেলতে নেমে বাজিমাত করেন এই ডানহারি পেসার। ঢাকা প্লাটুনের জার্সিতে নিজের জাত চিনিয়ে ১৩ ম্যাচে ১০ উইকেট নিলেও গতিময় বোলিংয়ের সঙ্গে নিখুঁত লাইন-লেংথে আলো কাড়েন তিনি। এরপর ডাক পান বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলে। অমিত সম্ভাবনা নিয়ে হাজির হলেও চোটের কারণে সুবিধা করতে পারছেন না।

বাংলাদেশের হয়ে টেস্ট ক্যাপ মাথায় না তুললেও বাকি দুই ফরম্যাটে অভিষেক হয়েছে হাসান মাহমুদের। গত বছরের মার্চে নিউজিল্যান্ড সফর থেকে চোট নিয়ে ফিরে সুযোগ পাননি শ্রীলঙ্কা সফরের স্কোয়াডে। এরপর শ্রীলঙ্কা দল বাংলাদেশে এলো, সেখানেও ছিলেন না হাসান মাহমুদ। খেলতে পারেননি ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগ। যেতে পারেননি জিম্বাবুয়ে সফরেও।

চোটের কারণে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজেও দর্শক হয়ে ছিলেন ২১ বছর বয়সী এই পেসার। নিউজিল্যান্ড সিরিজের পর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ এমনকি ঘরের মাঠে পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজেও ছিলেন না হাসান মাহমুদ। খেলতে পারেননি ঘরোয়া টুর্নামেন্টগুলোতেও।

বর্তমানে ফ্যাসিট জয়েন্ট ইনজুরিতে ভুগছেন হাসান মাহমুদ। তার চোট সারাতে সফট টিস্যু ম্যানেজমেন্ট প্রক্রিয়ায় এগিয়েছে বিসিবির মেডিক্যাল বিভাগ। দীর্ঘদিন খেলতে না পারার জন্য আক্ষেপ করতে নারাজ এই পেসার।

হাসান বলেন, ‘না, আসলে এটা আক্ষেপ করে কোনো লাভ নেই। ইনজুরি যতদিন ছিল ততদিন আমি বাইরে ছিলাম। এখানে আফসোসের কিছু নেই। এটা প্রাকৃতিকভাবে রিকভারি করে আসছে। না, আমিও জানি না কীভাবে ইনজুরিটা হয়েছিল। পেইন লোয়ার ব্যাক ম্যাসেলে।’

আসন্ন বিপিএলে খেলা হবে না হাসানের। তবে ফিরতে চান ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট টুর্নামেন্ট দিয়ে, ‘এক মাস পর। বিপিএলের চিন্তা অবশ্যই না আগে ফিট হওয়ার চিন্তা। এখন নরমালি একটা স্টেজ বাই স্টেজ আগাচ্ছি। ডিল থেকে বোলিংয়ে, বোলিং থেকে উইকেটে। ধারাবাহিকভাবে আগাচ্ছি। অবশ্যই প্রিমিয়ার লিগ থেকে টার্গেট থাকবে ফুল এফোর্ট দিয়ে খেলতে। প্রিমিয়ার লিগে মোহামেডানের সাথে কথা হচ্ছে।’

সঙ্গে যোগ করেন হাসান, ‘শেষ তিন সপ্তাহ ধরে বোলিং শুরু করেছি।আলহামদুলিল্লাহ এখন ভালো। এখন ৭০-৮০ শতাংশ আগাচ্ছি। এখন হচ্ছে হিপ কন্ডিশনিং, রানিং, রিহ্যাব তো আছে সাথে, তারপর স্ট্রেইন ট্রেনিং এরপর রিহ্যাবের সাথে যা আছে তাই। ধীরে ধীরে আগাচ্ছি।’

 

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
জনপ্রিয় সংবাদ
সর্বশেষ সংবাদ