মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ১১:৩৬ অপরাহ্ন

  • বাংলা বাংলা English English
মোংলার টাটিবুনিয়ায় জাতীয় দুর্যোগ প্রস্তুতি দিবস পালন
মোংলা (বাগেরহাট) থেকে অতনু চৌধুরী (রাজু) / ৭২ Time View
Update : মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২

“মুজিব বর্ষের সফলতা দূর্যোগ প্রস্তুতিতে গতিশীলতা” প্রতিপাদ্য’কে সামনে রেখে বাগেরহাটের মোংলা উপজেলার মিঠাখালী ইউনিয়নের টাটিবুনিয়া স্কুল মাঠে মিঠাখালী ইউনিয় সিপিপি’র আয়োজনে শুক্রবার (১১ মার্চ) বিকেল ৪ টায় জাতীয় দুর্যোগ প্রস্তুতি দিবস পালন করা হয়েছে।

এ উপলক্ষে এক বর্ণাঢ্য র‍্যালী ইউনিয়নের টাটিবুনিয়া স্কুল মাঠ থেকে বের হয়ে প্রধান সড়ক প্রদক্ষীণ করে আবার স্কুল মাঠে এসে শেষ হয়। পরে আলোচনা সভা অনুষ্টিত হয়। সভায় ইউনিয়ন টিম লিডার প্রভাশ মন্ডল (বিটু), সহ-টিম লিডার মো: মনির খাঁন, মোঃ আলম হাওলাদার, পলাস মিস্ত্রী, মোঃ রোমান কবির, মোঃ মাহমুদ হাসান, কিশোর রায়, আরিফ ফকির বক্তব্য রাখেন।

সভায় বক্তারা বলেন, সঠিক সময়ে যথাযথ প্রস্তুতি গ্রহণ করা গেলে দুর্যোগের ঝুঁকি হ্রাস করে জনগণের জানমালের ক্ষয়ক্ষতি কমিয়ে আনা সম্ভব। বর্তমানে সম্ভাব্য দুর্যোগ মোকাবিলায় পূর্ব-প্রস্তুতিকে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনার কার্যকর কৌশল হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

ভৌগোলিক অবস্থানগত কারণে বাংলাদেশে প্রতি বছরই বিভিন্ন ধরনের প্রাকৃতিক দুর্যোগ হয়ে থাকে। সঠিক সময়ে যথাযথ প্রস্তুতি গ্রহণ করা গেলে এসব দুর্যোগের ঝুঁকি হ্রাস করে জনগণের জানমালের ক্ষয়ক্ষতি কমিয়ে আনা সম্ভব।

বক্তারা বলেন, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলায় নানাবিধ পদক্ষেপ গ্রহণ করেছিলেন। উপকলীয় বনায়নের মাধ্যমে ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলা, বন্যা আশ্রয়কেন্দ্র এবং মুজিব কিল্লা নির্মাণের কাজও তখন থেকে শুরু হয়েছিল। সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় ক্ষুধা-দারিদ্র্যমুক্ত বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়ে তুলতে আমরা সক্ষম হবো, ইনশাআল্লাহ।

বর্তমান সরকার গত কয়েক বছরে প্রাকৃতিক এবং মানবসৃষ্ট দুর্যোগজনিত কারণে জনগণের জীবন ও সম্পদের ক্ষয়ক্ষতিরোধে উল্লেখযোগ্য সাফল্য দেখিয়েছে। দুর্যোগ বিষয়ক স্থায়ী আদেশাবলী হালনাগাদ করা হয়েছে।

দুর্যোগকে অন্তর্ভূক্ত করে ‘ব-দ্বীপ পরিকল্পনা ২১০০’ গ্রহণ করা হয়েছে। দুর্যোগে জীবন ও সম্পদের ঝুঁকিহ্রাসের ক্ষেত্রে বাংলাদেশের দুর্যোগঝুঁকি ব্যবস্থাপনা বর্তমানে বিশ্বে ‘রোল মডেল’ হিসেবে স্বীকৃত। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের নানাবিধ কার্যক্রম ও কর্মসূচিতে অনুপ্রাণিত বাংলাদেশের মানুষ যে কোন দুর্যোগে নিজেদের জীবন ও সম্পদ সুরক্ষায় সচেষ্ট এবং প্রস্তুত থাকার মনোবল অর্জন করেছে। এ সময় ইউনিয়নের সকল সিপিপি’র সদস্য বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
জনপ্রিয় সংবাদ
সর্বশেষ সংবাদ