শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ০২:৫০ পূর্বাহ্ন

ইবিতে ঈদের ছুটি শুরুর আগেই হল ছাড়ার নির্দেশ, ক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা
ইবি (কুষ্টিয়া) থেকে মুতাছিম বিল্লাহ রিয়াদ / ১৪০ Time View
Update : শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪

পবিত্র ঈদ-উল-আজহা উপলক্ষে আগামী ২৪শে জুন থেকে ৫ই জুলাই পর্যন্ত বন্ধ থাকবে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) একাডেকিম ও দাফতরিক কার্যক্রম। তবে এই ছুটি শুরুর দুইদিন আগেই ২২শে জুন থেকে আবাসিক হলসমূহ বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। ওইদিন সকাল ১০টার মধ্যে শিক্ষার্থীদের হল ত্যাগের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ছুটি আগামী ৫ জুলাই শেষ হলেও ৭ জুলাই সকাল ১০টায় হলসমূহ খুলে দেওয়া হবে।

সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রভোস্ট কাউন্সিলের সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। প্রভোস্ট কাউন্সিলের সভাপতি অধ্যাপক ড. দেবাশীষ শর্মা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

রেজিস্ট্রার দফতর সূত্রে, একাডেমিক ক্যালেন্ডার অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছুটি ঘোষণা করা হয়। সে অনুযায়ী আগামী ২৪শে জুন (শনিবার) থেকে ৫ই জুলাই (বুধবার) পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের জরুরি সেবা ব্যতীত সকল একাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। ৬ ও ৭ই জুলাই (বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার) সাপ্তাহিক ছুটি থাকায় ৮ই জুলাই (শনিবার) থেকে পুরোদমে বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল কার্যক্রম চলবে।

এদিকে ক্যাম্পাস ছুটির দুইদিন আগেই হল বন্ধের সিদ্ধান্তে বিপাকে পড়েছেন দূর-দূরান্তের শিক্ষার্থীরা। এ ছাড়া অনেক বিভাগে ২২শে জুন তারিখ পরীক্ষা রয়েছে। অফিসিয়ালি ছুটি শুরুর আগেই হল বন্ধের ঘোষণায় ক্ষুব্ধ হয়েছেন শিক্ষার্থীরা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তারা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের হিউম্যান রিসোর্স এন্ড ম্যানেজমেন্ট বিভাগের চতুর্থ বর্ষের কয়েকজন শিক্ষার্থী বলেন, আমাদের সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা চলছে। ২২ তারিখে দুপুর ২ টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত আমাদের পরীক্ষা আছে। আর সকালে হল ছাড়তে বলা হয়েছে। এটা কর্তৃপক্ষের অযৌক্তিক সিদ্ধান্ত।

বিশ্ববিদ্যালয়ের লোকপ্রশাসন বিভাগের শিক্ষার্থী মিলন জ্যোতি চাকমা। তার বাড়ি রাঙামাটি। তিনি বলেন, নীতি নির্ধারকরা অত্যন্ত বাজে একটা সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ক্যাম্পাস ছুটি শুরু ২৪ তারিখ থেকে। টিকিট কেটেছি ২২ তারিখ বিকাল ৫ টায় আর হল ছাড়তে হবে ২২ তারিখ সকাল ১০ টায়। তাহলে বাকি সময়টুকু সারাদিন খোলা মাঠে বসে ঘাস কাটতে হবে আমাদের! ২২ তারিখে কয়েকটা ডিপার্টমেন্টে পরীক্ষাও আছে। তাহলে এই সিদ্ধান্ত কাদের জন্য?

আবু সাঈদের বাড়ি পঞ্চগড়ে। তিনি বলেন, ঈদের পরিবহনের অন্তত ৮-১০ দিন আগে টিকেট ছাড়ে। একাডেমিক ক্যালেন্ডারে ছুটির তারিখ দেখে আমরা অনেকেই ২৩-২৪ তারিখের টিকেট কেটেছি। ঈদের সময় টিকেট পাওয়া কতটা কষ্টসাধ্য সেটা সবাই জানে। বিশেষ করে আমাদের যাদের দূর-দূরান্তে বাড়ি আমরা এই দুইদিন থাকবো কোথায়? ২৪ জুন থেকে ছুটি শুরু হলে ২২ জুন কেন হল বন্ধ ঘোষণা করা হবে?

ছাত্র ইউনিয়ন ইবি সংসদের সাধারণ সম্পাদক মুখলেসুর রহমান সুইট বলেন, হল বন্ধের আগেই বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ হওয়াটা একবারে অযৌক্তির সিদ্ধান্ত। এটি প্রশাসনের অদূরদর্শী চিন্তার বহিঃপ্রকাশ বলে আমি মনে করি। অন্তত যেদিন থেকে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ সেদিন থেকে হল বন্ধ হওয়া উচিত।

প্রভোস্ট কাউন্সিলের সভাপতি অধ্যাপক ড. দেবাশীষ শর্মা বলেন, ২২ তারিখে সকাল ১০টায় হল বন্ধ হবে এবং ৭ তারিখে সকাল ১০টায় হল খুলবে। বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার এমনিতেও বন্ধ। যেহেতু আমরা ২২ তারিখ থেকে বন্ধ পাচ্ছি তাই সেদিন থেকেই হল বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

শিক্ষার্থীদের অগ্রীম টিকেট কাটার বিষয়ে তিনি বলেন, এখানে আগে থেকে ভাবার বা মনে করার কোনো সুযোগ নাই। লাল কালি যখন থেকে শুরু তখন থেকই হল বন্ধ হবে এমন সিদ্ধান্ত হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category