শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ০১:২৯ পূর্বাহ্ন

বিয়ে করলেন জাতীয় হকি দলের তারকা গোলরক্ষক ইয়াসিন আরাফাত হিমেল
কিশোরগঞ্জ থেকে সালেক হোসেন রনি / ৪৪৩ Time View
Update : শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪

কিশোরগঞ্জের গৈারব, হীরার টুকরো বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২১ জাতীয় হকি দলের গোলরক্ষক ইয়াসিন আরাফাত হিমেল। সাদিয়া সামাদ ইতির সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন এই তারকা গোলরক্ষক।  গত ১৮ জুন আংটি বদল ও কাবিন অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়।

এ বিষয়ে ইয়াসিন আরাফাত হিমেল অগ্রযাত্রাকে জানান, আমি আমার মায়ের পছন্দ মতো বিয়ে করেছি এবং আমরা খুবই ভালো বন্ধু ছিলাম। তারপর আমরা আমাদের ফ্যামিলিকে বলি এরপরেই দুই পরিবারের সম্মতিতে আমরা বিয়ে করি।

দেখতে দেখতে হকিতে এক যুগ পার হয়ে গেছে তরুণ ও তারকা গোলরক্ষক ইয়াসিন আরাফাত হিমেলের। সেই ছোট্ট বয়সে হকিতে হাতেখড়ি তার। কিশোরগঞ্জ জেলার অন্যতম বিদ্যাপীঠ আরজত আতরজান উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়ার সুবাদে সেখানকার হকি কোচ নুরুজ্জামান রিপেল এবং স্কুল শিক্ষক এম এ আব্দুল্লাহ স্যারের হাত ধরে হকিতে আসা। এরপর সেখান থেকে ২০১০ সালে বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে (বিকেএসপি) ভর্তি হন দেশ সেরা এ গোল রক্ষক। বিকেএসপির পাঠ চুকিয়ে হাত গুটিয়ে বসে থাকেননি মেধাবী এবং পরিশ্রমী খেলোয়াড় হিমেল।

২০১৮ সালে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে যোগ দেন তিনি। এখন সেখানেই নিয়মিত অনুশীলনে ব্যস্ত সময় পার করছেন তিনি।

ইয়াসিন আরাফাত হিমেল  প্রথমে বাংলাদেশ হকি প্রিমিয়ার লীগ আজাদ স্পোর্টিং ক্লাবের হয়ে খেলেন। তার পর দুই বার এজাক্স এস সির হয়ে খেলেন। শেষ প্রিমিয়ার লীগে অবশ্য ওয়ারি ক্লাবের  অধিনায়ক ছিলেন। প্রিমিয়ার ডিভিশনের মত বড় লীগে অধিনায়কত্ব করা ভাগ্যের ব্যাপার বলে মনে করেন তিনি।

সর্বশেষ ২০২২ সালে হকি চ্যাম্পিয়ন ট্রফি সাইফ পাওয়ার খুলনার হয়ে খেলেন তিনি। বর্তমানে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী হকি দলের হয়ে খেলছেন তিনি। বাংলাদেশে সেনাবাহিনী হকি দল দেশের সেরা ।

২০১৮ সালে বাংলাদেশ হকি দলের হয়ে দেশের মাটিতে এশিয়া কাপে রানার আপ। এই টুর্নামেন্টেই এশিয়ার শক্তিশালী দল ভারত পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছিল বাংলাদেশ।

সাদিয়া সামাদ ইতির সাথে কিভাবে পরিচয় জানতে চাইলে তিনি এ বিষয়ে জানান’ আমি আমার  মায়ের  পছন্দ মতো বিয়ে করেছি এবং একটা সময় আমরা খুবই ভালো বন্ধু ছিলাম। আমাদের মধ্যে মন দেওয়া নেওয়া শুরু হয়ে যায় তারপর আমরা আমাদের ফ্যামিলিকে বলি – তারপর দুই পরিবারের সম্মতিতে আমরা বিয়ে করি’  আমি পরিবারের একমাএ ছেলে। আমার বাবার সাথে সাদিয়া সামাদ ইতির বাবার ভালো সম্পর্ক। তাই তাদের কথা মত বিয়ে করলাম। সত্য কথা বলতে  সাদিয়াকে দেখার পর আমার ভালো লেগেছে আস্তে আস্তে তার মায়ায় জড়িয়ে গেলাম। তারপর প্রেম শুরু করে দিলাম। সাদিয়া একটু বেশি লাজুক । আমি খেলাধুলা ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে চাকরী করি বেশি সময় দিতে পারিনা। তারপরও সাদিয়ার আমার প্রতি কোন অভিযোগ নাই। সাদিয়ার সাথে আমার বুঝা-পড়াটা খুবই ভালো’।  তার সাথে আমার অনেক মিল আছে, বলা যাই ৯০%। আমাদের বিয়েটা অনেক আগে থেকে ঠিক হয়ে ছিল। আমি যেহেতু বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে চাকরী করি। তাই বাংলাদেশ সেনাবাহিনী থেকে বিয়ের জন্য অনুমতি লাগে। আল্লাহর রহমতে গত তিন দিন আগে আমি অনুমতি পাই। তাই এই অল্প সময়ে আংটি বদল ও কাবিন করে করেছি’।

আমি যেহেতু হকি খেলোয়াড় তাই আমি ও আমার পরিবার চাই আমাদের অনুষ্ঠানে সকল হকি খেলোয়াড়রা আসুক তাই আমি কোরবানী ইদের পর ঢাকায় অনুষ্ঠান করবো। কারণ ঈদের পড়ে লীগ আছে। লীগের মধ্যে অনুষ্ঠান করলে সকল খেলোয়াড় আসতে পারবে।

দেশ সেরা এ হকি গোলরক্ষক দেশবাসীর কাছে তাদের দাম্পত্য জীবনের জন্য দোয়া চেয়েছেন।

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
জনপ্রিয় সংবাদ
সর্বশেষ সংবাদ